আজ ১৮ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২রা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ :

মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

কেরানীগঞ্জ, ( ঢাকা ) প্রতিনিধি:বাংলাদেশ পুলিশ কল্যাণ ট্রাস্টের উদ্যোগে ঢাকার কেরানীগঞ্জে ৬০ শয্যা বিশিষ্টি মাদকাসক্তি নিরাময় ও মানসিক স্বাস্থ্য পরামর্শ (ওয়েসিস) কেন্দ্র উদ্বোধন করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (০৭ অক্টোবর) দুপুরে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার বসুন্ধরা রিভারভিউ প্রকল্প এলাকায় ওয়েসিস নামে এই মাদক নিরাময় ও পুর্নবাসন কেন্দ্রের উদ্বোধন করা হয়।

এতে বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদের সভাপতিত্বে অন্ষ্ঠুানে প্রধানঅতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল, বিশেষ অতিথি ছিলেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক, বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খণিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাশার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আজিজুলল ইসলামসহ অনেকে। উক্ত অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন ঢাকা রেঞ্জে ডিআইজি হাবিবুর রহমান।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদের দাবি, এখানে তার ১০ বেডের হাসপাতালের দিকে একটু নজর দিতে। আমি বলতে চাই, উনার ১০ বেডের হাসপাতালে যন্ত্রপাতি দিয়ে ভরে দেবো। কিন্তু আপনি শুধু বিদ্যুৎটা ঠিকমতো চালিয়ে যায়েন। এখনও বিদ্যুৎ চলে যায়৷ আমি মাঝে মাঝে গ্রামের বাড়িতে যাই। তখন বিদ্যুৎ চলে গেলে আমাকেও মাঝে মাঝে জেনেরেটর চালাতে হয়। আমি আশা করছি বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী এ বিষয়টির দিকে নজর দেবেন।

স্বাস্থ্য সংশ্লিষ্ট বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী উদারতার কথা তুলে ধরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, করোনার ভ্যাকসিনের জন্য প্রধানমন্ত্রী প্রায় ২০ হাজার কোটি ব্যয় করেছেন। যত টাকাই লাগে দেশের প্রতিটি মানুষকে ভ্যাকসিনের আওতায় আনা হবে। যাতে করে সারা বাংলাদেশের মানুষে সুরক্ষিত থাকতে পারে। টিকাদানে বাংলাদেশ অনেক দেশের চেয়ে এগিয়ে রয়েছে উল্লেখ করে বলেন, আমরা প্রায় সাড়ে তিন কোটি মানুষকে করোনা টিকার প্রথম ডোজ দিয়েছি। প্রায় দুই কোটি মানুষকে দ্বিতীয় ডোজ দিতে সক্ষম হয়েছি।
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা আমাদেরকে কথা দিয়েছে, আমরা ভ্যাকসিন তৈরি করতে যা যা সাপোর্ট প্রয়োজন, তারা সেসব সাপোর্ট দেবে। এতে করে বাংলাদেশ ভ্যাকসিন তৈরির পর বিদেশেও রপ্তানি করতে পারবে।

মন্ত্রী আরও বলেন, করোনা নিয়ন্ত্রণে না থাকলে দেশের কোনো কিছুই নিয়ন্ত্রণে থাকে না। করোনা এখন নিয়ন্ত্রণে আছে, আমাদের নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে।

তিনি আও বলেন, দেশে প্রায় ৫০ লাখ মানুষ মাদকাসক্ত। মাদক নিলেই যে মানুষ অপরাধী হয়ে যায় কথাটি সঠিক নয়। মাদক কে ঘৃনা করতে হবে, মাদকাসক্ত কে নয়। কেউ মাদকাসক্ত হলে তাকে চিকিৎসার মাধ্যমে ভালো করতে হবে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন বলেন, মাদকের ক্ষতিকর প্রভাব থেকে রক্ষায় মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নিয়েছে সরকার। শুধু সরকার নয় জনপ্রতিনিধি, জনগণসহ সবাইকে মাদকের বিরুদ্ধে সচেতনতায় কাজ করতে হবে । তিনি বলেন, মাদকাসক্তদের চিকিৎসার আওয়তায় আনতে হবে। একারণে অভিভাবকদের সচেতন হয়ে সন্তান কে চিকিৎসার আওতায় নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ :