আজ ১৮ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২রা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ :

শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে ফেরি চলাচল আবার  বন্ধ 

নাসিরউদ্দিন উজ্জ্বল
পদ্মা নদীতে স্রোতের গতি বেড়ে যাওয়ায় কারণ দেখিয়ে  শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে ফেরি চলাচল আবার বন্ধ করে দিয়েছে বিআইডব্লিউটিসি। সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টায় ফেরি বন্ধে ঘোষণায় বিপাকে পরে হাজার হাজার মানুষ।
বিআইডব্লিউটিসির চেয়ারম্যান সৈয়দ তাজুল ইসলাম জানান, পদ্মা নদীতে স্রোত বেড়ে যাওয়ায় শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে ফেরি চলাচল সাময়িক বন্ধ রাখা হয়েছে। তিনি আরও জানান, বিকেলে স্রোতের গতি মাপা হবে। এরপর বিশেষজ্ঞদের মতামত নিয়ে ফেরি চলাচলের উপর সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।
ঘাট কর্তৃপক্ষ বলছে, পদ্মা সেতুর নিরাপত্তা ও নৌ দুর্ঘটনা এড়াতে ফেরি চলাচল বন্ধ রয়েছে। তবে স্রোত কমে আসলে আবারো ফেরি চলাচল শুরু হবে।  পদ্মায় স্রোত ও পানির উচ্চতা বেশি থাকায় গত জুলাই ও আগস্টে পদ্মা সেতুর খুঁটিতে পাঁচবার ফেরির ধাক্কা লাগে।  একবার ফেরির মাস্তুল সেতুর সাথে লেগে যায়।  এ পরিস্থিতিতে নৌপথে সব ধরনের দুর্ঘটনা এড়াতে গত ১৮ আগস্ট দুপুরের পর এ রুটে ফেরি চলাচল বন্ধ ছিল।  নদীর পরিস্থিতি স্বাভাবিক উল্লেখ করে গত ৪ অক্টোবর থেকে ৫ টি ছোট ফেরির মাধ্যমে আবারো পারাপার শুরু হয়। উত্তরাঞ্চলের বন্যার পানি পদ্মা নদী হয়ে সাগরের দিকে যাচ্ছে। এতে নদীতে এখনো  স্রোত রয়েছে বলে দাবী করা হচ্ছে । তবে সোমবার দুপুরে স্রোতের পরিমান বেড়ে যাওয়ায় আবারো বন্ধের কারণ উল্লেখ করেছে কর্তৃপক্ষ। এতে আবারও দুর্ভোগে পড়লো এ নৌপথের যাত্রী ও চালকরা।
শিমুলিয়া ঘাট এর ট্রাফিক পুলিশ পরিদর্শক মো. জাকির হোসেন জানান, স্রোতের কারণে সাময়িক সময়ের জন্য ফেরি চলাচল বন্ধ রয়েছে। আপাতত: ঘাটে ৪০ টি ছোট গাড়ি পারাপারের অপেক্ষায় আছে। ইতিমধ্যে ঘাটে মাইকিং করা হয়েছে। যাত্রী ও যানবাহন চলকদের অন্য নৌপথ ব্যবহারের জন্য বলা হচ্ছে।
বিআইডব্লিউটিসির শিমুলিয়া ঘাট এর উপ মহাব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) সফিকুল ইসলাম  জানান, ৫টি ছোট ফেরি দিয়ে জরুরী সেবার যানবাহন ও ছোট গাড়ি পারাপার করা হচ্ছিলো। কিন্তু সংশ্লিষ্ট কমিটির রিপোর্টে জানানো হয়েছে
পদ্মা নদীতে হঠাৎ করে স্রোত বেরে যাওয়ায় ফেরিগুলো চলাচল করতে ঝুঁকি রয়েছে। নৌ দুর্ঘটনা ও পদ্মা সেতু নিরাপত্তার কথা বিবেচনায় সাময়িকভাবে ফেরি চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে।
চলতি ৪ অক্টোবর দীর্ঘ ৪৮ দিন ফেরি বন্ধের মাথকায় শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে ফেরি চালুর আবার ৭ দিনের মাথায় বন্ধের ঘটনার ক্ষোভ প্রকাশ করে ঘাট ব্যবহারকারীরা বলছেন, এখস মেহন্ত আসতে যাচ্ছে,  প্রকৃতিতে শীত করা নাড়ছে, সেখানে নাব্য সঙ্কট হতে পারে,  কিন্তু স্রোতের কারণে ফেরি বন্ধ গ্রহণযোগ্য নয়।  লঞ্চ, ট্রলার ও স্পীডবোট সব নৌ যান চলাচল করছে, আর শুধু ফেরি বন্ধ রাখা হচ্ছে।
 হঠাৎ ফেরি চলাচল বন্ধ হওয়ায় অনেক মানুষ ফিরে যাচ্ছে। এই পথে আসা যাত্রী ও যানবাহনগুলোর সীমামীন কষ্টে দুর্ভোগ পোহাচ্ছে।  পূজোর ছুটিতে ঘোর মুখো মানুষের দুর্ভোগ আর বেশী। অনেকেই পরিবার পরিজন নিয়ে ঘাটে এসে দেখেন ফেরি বন্ধ।  তবে কর্তৃপক্ষ কখন চালু হবে তা নিশ্চিত না করে বলছে – স্রোত স্বাভাবিক হলে ফেরি চলাচল করবে।
কর্তৃপক্ষ বলছে, যে দিক দিয়ে ফেরি চলাচল করছে, সেখানে প্রতি ঘন্টায় স্রোতের গতি পৌনে ৮ কিলোমিটার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ :