আজ ১৭ই মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ৩রা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ :

যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশি মা-ছেলের ইতিহাস গড়া কীর্তি

অনলাইন ডেস্ক: ৪৮ বছর বয়সেও বিদেশের মাটিতে ব্রোঞ্জপদক জিতে ইতিহাস গড়লেন বাংলাদেশের প্রথম ব্ল্যাক বেল্ট প্রাপ্ত নারী কারাতেকা শামিমা আখতার তুলি। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের লাসভেগাসে অনুষ্ঠিত ‘দি ওজাওয়া কাপ’ টুর্নামেন্টের ভ্যাটেরার্ন ৪৫-৫৯ বছর ক্যাটাগরিতে কাতা ইভেন্টে অংশ নিয়ে তিনি ব্রোঞ্জপদক জেতেন। যেখানে ৩০ দেশের প্রায় নয়শ’ কারাতেকা নিজেদের নৈপূণ্য প্রদর্শন করেন। এছাড়া তুলির ছেলে লিওন ১৮-৩০ বছর ক্যাটাগরিতে কাতা ও কুমি ইভেন্টে দুটি ব্রোঞ্জপদক জয় করেন। একটি টুর্নামেন্টে মা ও ছেলের তিন পদক জয় বাংলাদেশের ইতিহাসে এটাই প্রথম। বয়স ১৮ পূর্ণ হওয়ার আগেই জাতীয় চ্যাম্পিয়ন হন তুলি। দেশে থাকতে নিজ ক্যারিয়ারে ১৯৮৯ থেকে ১৯৯৩ সাল পর্যন্ত টানা পাঁচবার জাতীয় শিরোপা ঘরে তুলেছেন। কারাতে ছাড়াও ইয়োগা, পিলাত, বডিবিল্ডিং, পাওয়ারলিফটিং, সাভাতে, কুংফু, ক্রাভ মাগার মতো বিভিন্ন ইভেন্টে খেলতে ১০টি দেশ ভ্রমন করেছেন। ‘ব্যায়াম ছেড়ে দিলে কি মোটা হয়ে যাব?’ শীর্ষক একটি বইও লিখেছেন তুলি। এছাড়া নারীদের ব্যায়ামের জন্য ২০ বছর যাবত কমব্যাট জিম নামে একটি প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করে আসছেন। তুলির কথা, ‘জাপান কারাতে অ্যাসোসিয়েশনের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ও সোতোকান কারাতের প্রতিষ্ঠাতা জাপানের ওসামু ওজাওয়ার নামে এই টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের হয়ে আমি ও আমার ছেলে দু’টি পদক জিতেছি। যা দেশের ইতিহাসে প্রথম। এভাবেই সামনের দিনগুলোতে এগিয়ে যেতে চাই।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে অনার্স ও মাস্টার্স করা তুলি রতœগর্ভা মা রওশন আরা বেগমের কনিষ্ঠ সন্তান। প্রফেসর ভাইবোনদের ভিড়ে তথাকথিত নিশ্চিত জীবিকার পথ না মাড়িয়ে বেছে নেন ব্যায়ামবিদ হওয়ার জীবন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ :