আজ ৫ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২০শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ :

লৌহজংয়ে মালিরঅংক বেইলি ব্রিজটি যেন মরণ ফাঁদ

মো. শওকত হোসেন:
মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার প্রধান সড়কের মালিরঅংক বাজার সংলগ্ন বেইলি ব্রিজটি এখন মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। যে কোনো সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা। মেয়াদ উত্তীর্ণ এই সেতুর পাটাতনে মরিচা ধরে ভেঙে গিয়ে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এতে যান চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। পাটাতন ভেঙে যাওয়ার কারনে দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। যানজটে যাতায়াত কারিদের ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষায় থাকতে হচ্ছে। ভাঙা পাটাতনে যানবাহনের টায়ার আটকে প্রতিদিন কোনো না কোনো দুর্ঘটনা ঘটেই চলছে। বড় ধরনের দুর্ঘটনা এড়াতে দ্রুত সংস্কার ও রাস্তা বা পাকা সেতু নির্মাণের দাবি এলাকাবাসী ও যানবাহন চালকদের।
স্থানীয়দের দাবী বেইলি ব্রিজটির পানি প্রবাহ খাল অনেক আগেই ভরাট হয়ে গেছে। তাই পানি প্রবাহের জন্য এখানে ব্রিজের প্রয়োজন নেই।

আজ মঙ্গলবার সরেজমিনে দেখা গেছে, মাওয়া লৌহজং থেকে টঙ্গীবাড়ি-মুন্সীগঞ্জ যাতায়াতের আঞ্চলিক প্রধান সড়কের মালিরঅংক বাজারে প্রবেশমুখে সংলগ্ন মেয়াদ উত্তীর্ণ এই বেইলিব্রিজ পাটাতনে মরিচা ধরে ভেঙে গিয়ে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এতে যান চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। এর ওপর দিয়ে প্রতিনিয়ত হালকা ও ভারী যানবাহন চলাচল করে থাকে। দীর্ঘদিন ধরে এর মেরামত কাজ না করায় এটি অত্যন্ত নাজুক অবস্থায় রয়েছে। মরিচা ধরে পাটাতন ভেঙে গিয়ে বিভিন্ন স্থানে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। রেলিংয়ের বিভিন্ন অংশ মরিচা ধরে নষ্ট হয়ে গেছে। এই ব্রিজের ওপর দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে প্রতিদিন শত শত যানবাহন ও লাখ লাখ মানুষ যাতায়াত করে। ব্রিজটি সরু হওয়ায় দুটি ছোট গাড়ি পাশাপাশি যেতে পারে না। এতে যানবাহনের জটলা লেগে যানজট লেগে থাকছে। দীর্ঘ যানজটের কারনে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষায় থাকতে হচ্ছে।
মালিরঅংক বাজারের দাকানদার মো. ইদ্রিস শেখ ও মো. সবুজ জানান, খালতো ভরাট হয়ে গেছে এখানে ব্রিজের দরকার কী। ব্রিজ ভেঙে রাস্তা নির্মাণ করা হউক।
অটোরিক্সা চালক শরিফ হোসেন জানান, ব্রিজের পাটাতন ভাঙার কারনে লৌহার প্লেটের ফাকে পরে টায়ার কেটে যায়। তার গাড়ির টায়ার অনেকবার নষ্ট হয়ে গেছে বলে জানান।
বেজগাঁও ৪নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য মো.মিজানুর রহমান জানান, যেহেতু এখানে খাল ভরাট হয়ে গেছে। আমার ব‍্যাক্তিগত মতামত বেইলি ব্রীজ ভেঙ্গে রাস্তার হলে ভাল হয়।

বেজগাঁও উউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো.ফারুক ইকবাল মৃধা জানান, মালিঅংক বেইলি ব্রিজটির ব্যপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাথে ব্রিজ ভেঙ্গে রাস্তা নির্মানের জন‍্য বলা হয়ে ছিলো। তিনি ম‍্যাপে খাল আছে বলে জানান। আমি দেখেছি ব্রিজের নিচের খালটি ভরাট হয়ে গেছে। এখন বড় করে কালভার্ট নির্মাণ করে দিলে প্রস্ত রাস্তা হলে সাধারণ মানুষের চলাচলে অনেকে সুবিধা হয়। বর্তমান যে যানজট লেগে থাকে তা থাকবে না।
মুন্সীগঞ্জ জেলা সড়ক ও জনপথ উপ-বিভাগের প্রকৌশলী ফাইম রহমান খান জানান, মালিঅংক বেইলি ব্রিজ ভেঙ্গে রাস্তা করার পরিকল্পনা আছে। এছাড়া ব্রীজ যে ভাঙ্গা বা ফাটল বিষয়টি অতিদ্রুত ব‍্যবস্থা নেয়া হবে।#

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ :