আজ ১লা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ :

চাঞ্চল্যকর সিয়াম হত্যা মামলার প্রধান দুই আসামী র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার

 

স্টাফ রিপোর্টার : নারায়ণগঞ্জ সদর থানায় সংঘটিত চাঞ্চল্যকর অটোরিক্সা চালক সিয়াম হত্যা মামলার প্রধান দুই আসামীকে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১১’র সদস্যরা। শুক্রবার (২০ মে) র‌্যাব-১১’র একটি আভিযানিক দল নারায়ণগঞ্জ সদর থানার আলীরটেক এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করে। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো,  নারায়ণগঞ্জ সদর থানার আলীরটেক এলাকার মো: ইয়ামিন (১৯) ও মো: নবী হোসেন।

শনিবার বিকালে র‌্যাব-১১’র সদর দপ্তর থেকে উপ-পরিচালক, স্কোয়াড্রন লীডার এ কে এম মুনিরুল আলম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে র‌্যাব জানায়, গত ১৭ মে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার আলীরটেক তৈলখিয়ার চর জনৈক আতাউর রহমান ও বাদলের পরিত্যক্ত ইট ভাটায় অটোরিক্সা চালক সিয়ামের অর্ধগলিত লাশ পাওয়া যায়। উক্ত ঘটনায় নিহতের বাবা বাদী হয়ে সদর মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং-২২, তারিখ-১৮/০৫/২২ইং, ধারা- ৩৯৪/৩০২/২০১/৩৪ পেনাল কোড। নৃশংস এই হত্যাকান্ডটি এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করে। এই ঘটনা স্থানীয় ও জাতীয় বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ আকারে প্রকাশিত হয় ও ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করে।

প্রাথমিক অনুসন্ধান ও মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, নিহত সিয়াম একজন অটোরিক্সা চালক। প্রতিদিনের ন্যায় সে গত ১৩ মে তার অটোরিক্সা নিয়ে ভাড়ার উদ্দেশ্যে বের হলেও অন্যান্য দিনের ন্যায় সন্ধ্যায় সে আর বাসায় ফিরে আসেনি। এতে তার পরিবার উদ্বিগ্ন হয়ে তাকে খোঁজাখুজি করতে থাকে। খোঁজাখুজির এক পর্যায়ে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার আলীরটেক তৈলখিয়ার চর জনৈক আতাউর রহমান ও বাদলের পরিত্যক্ত ইট ভাটায় সিয়ামের অর্ধগলিত লাশ ইটের ভিতর লুকানো অবস্থায় পাওয়া যায়।

গ্রেপ্তারকৃত আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, গত ১৩ মে গ্রেফতারকৃত আসামীদ্বয় ও অজ্ঞাতনামা ৩/৪ জন আসামী সিয়ামের অটোরিক্সাটি ছিনিয়ে নেওয়ার উদ্দেশ্যে তাকে পূর্ব পরিচিতির জের ধরে মোবাইল ফোনে ফোন করে অটোরিক্সা সহ ডেকে নেয় এবং সারাদিন তার অটোরিক্সা নিয়ে ঘুরাঘুরি করে ১৩ মে সন্ধ্যায় তাকে উক্ত পরিত্যক্ত ইট-ভাটায় নিয়ে যায়।

 

সেখানে তারা সিয়ামকে মাটিতে ফেলে কয়েকজন মিলে হাত-পা শক্ত করে ধরে এবং ধৃত আসামী ইয়ামিন সিয়ামকে গলায় চাকু মেরে জবাই করে। পরবর্তীতে সিয়ামের মৃত্যু নিশ্চিত হলে তারা লাশটি গুম করার উদ্দেশ্যে ইট দিয়ে ঢেকে রাখে ও অটোরিক্সাটি বিক্রিয় করে পরস্পর টাকা ভাগাভাগি করে নেয়। গ্রেপ্তারকৃত আসামীদ্বয়কে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় হস্তান্তরের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও র‌্যাব নিশ্চিত করেছে।

 

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ :