আজ ৫ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২০শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ :

বাড়িঘরে হামলা ও ভাংচুরের অভিযোগ

বাড়িঘরে হামলা ও ভাংচুরের অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার।
ঢাকার কেরানীগঞ্জে পূর্ব শত্রুতার জেরধরে চর সোনা কান্দা গ্রামে মোঃ আশরাফ আলীর বাড়িঘরে হামলা ভাংচুরের অভিযোগ উঠেছে । ঘটনাটি ঘটেছে সিরাজদিখান সীমানা ঘেঁষা কেরানীগঞ্জ উপজেলার রুহিতপুর ইউনিয়নের চর সোনাকান্দা গ্রামে। গত রবিবার ০৭ আগষ্ট সকাল ১০টার দিকে কালু মিয়া, সুরুজ মিয়া,বাচ্চু মিয়া, রহিম মিয়াগংদের নেতৃত্বে হামলা ভাংচুর ও লুটপাট করে বলে জানাই ভুক্তভোগী পরিবার।

ভুক্তভোগী আশরাফ আলী অভিযোগ করে বলেন, আমার সোনাকান্দা মৌজার আর এস ৯৪৩০ দাগের বাড়িতে তিন সতীনের ঘর তুলে সেখানে রুনা বেগম ও মানিক মিয়ার পরিবারকে বাৎসরিক চুক্তিতে ভাড়া দেই। প্রায় ১৬ বছর ধরে তারা আমার বাসার ভাড়াটিয়া ভাবে বসবাস করে আসছে। কিছুদিন ধরে বাস্তা ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি ফিরোজ মিয়ার প্রভাব খাটিয়ে আমার জমি দখলের পাঁয়তারা করে আসছে। এ বিষয়ে আদালতে মামলা চলমান রয়েছে। স্থানীয় গণ্যমান্য নিয়ে একাধিকবার বিচার-সালিশ হলেও তারা জোরপূর্বক আমাদের জমি দখল করতে চায়। এরই ধারাবাহিকতায় রবিবার সকাল ১০ টার দিকে বিএনপির সভাপতি ফিরোজ মিয়ার ভাই কালু মিয়া, সুরুজ মিয়া ও রহিম মিয়ার নেতৃত্বে ৫০-৬০ জনের একটি সংঘবদ্ধ দল। আমার বাড়িতে ঢুকে ঘরগুলো ভেঙে ফেলে। আমার ভাড়াটিয়ার মালামাল সব উঠানের মাঝখানে ফেলে দেয়। পরবর্তীতে এ খবর পেয়ে আমি ৯৯৯ ফোন দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে আসলে তারা পালিয়ে যায়। যাওয়ার সময় আমার ভাড়াটিয়াকে হুমকি-ধামকি প্রদান করে এবং আমাকেও হত্যা করে বলেও হুমকি দিয়ে যায়।

ভুক্তভোগী ভাড়াটিয়া রুনা বেগম বলেন, আমি আমার মেয়েদেরকে নিয়ে বাড়িতেই ছিলাম। সকাল ১০টার দিকে কালু মিয়া ৫০-৬০জন লোক ও ঘরের মিস্ত্রি নিয়ে আমার বাড়িতে আসে। তারা আমাকে বলে ভালো চাইলে ঘর থেকে দ্রুত বের হয়ে যা। আমি ঘর থেকে বের হতেই তারা মিস্ত্রি দিয়ে আমার ১টি থাকার ঘর ১টি গরুর ঘর ও ১টি রান্নাঘর ২০মিনিটের মধ্যেই ভেঙে দেয়। সব গুলি ঘরের বেড়া ও চাল খুলে ফেলে। মালামাল সব বের করে দেয় উঠানের মাঝে। বিষয়টি আমি সাথে সাথে আমার বাড়ির মালিককে ফোনে জানাই। সে পুলিশ পাঠালে তারা পালিয়ে যায়।

কেরাণীগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মামুন অর-রশিদ বলেন, এ বিষয়ে পাল্টাপাল্টি মামলা রয়েছে। সেখানে ইনেসপেক্টরকে পাঠিয়েছে সঠিক তদন্ত করার জন্য। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ :