আজ ৫ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২০শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ :

শ্রীনগরে এক্সপ্রেসওয়েতে ডাকাতি, এক ডাকাতের লাশ উদ্ধার

 

স্টাফ রিপোর্টার : শ্রীনগর উপজেলায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এক্সপ্রেসওয়ে থেকে আবদুল মালেক ওরফে আবদুল আলীম (২৯) নামের এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পুলিশের দাবি, ওই ব্যক্তি ডাকাত দলের সক্রিয় সদস্য। ডাকাতি করে পালিয়ে যাওয়ার সময় তাঁর মৃত্যু হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

রবিবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে মহাসড়কের কেওয়াটখালী এলাকা থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। এর আগে ওই এলাকায় সড়কে সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও প্রাইভেট কার থামিয়ে ডাকাতির ঘটনা ঘটে। এ সময় ডাকাতদের ছুরিকাঘাতে দুই তরুণ আহত হন। পরে টহল পুলিশ ওই এলাকায় গেলে ডাকাত দলের সদস্যরা পালিয়ে যান। এ সময় আবদুল মালেকের লাশ উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ জানিয়েছে, আবদুল মালেকের বাড়ি পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলার হরিণাপাল এলাকায়। তাঁর বিরুদ্ধে ঢাকা, গাজীপুর ও পটুয়াখালীতে চারটি ডাকাতি মামলা রয়েছে। এ দিকে ডাকাতির ঘটনায় আহত দুজন হলেন মোহাম্মদ হৃদয় (১৭) ও মোহাম্মদ ইমাম হোসেন (১৮)। হৃদয় ও ইমাম ঢাকার রায়েরবাগ এলাকার বাসিন্দা। ডাকাতির ঘটনায় আহত হৃদয় বলে, গতকাল রাতে তাঁরা আট বন্ধু মিলে রাজধানীর রায়েরবাগ থেকে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় চড়ে মাওয়ায় ঘুরতে আসেন। রাত তিনটার দিকে তাঁরা বাড়িতে ফিরছিলেন। শ্রীনগরের কেওয়াটখালী এলাকা পৌঁছালে ছয়–সাতজনের একটি ডাকাত দল তাঁদের পথরোধ করে। এ সময় অস্ত্রের মুখে মারধর করে ডাকাত দল তাঁদের মুঠোফোন ও টাকাপয়সা ছিনিয়ে নেয়। এতে সে ও তার বন্ধু ইমাম হোসেন আহত হন। ইমাম হোসেন বলেন, ‘ডাকাত দলের সদস্যদের সঙ্গে ধারালো অস্ত্র ছিল। তাঁরা আমার হাতের কবজিতে কোপ দিতে চান। আমি হাত সরিয়ে নিলে আমার আঙুলে কোপ লাগে। তাঁরা আমাদের সামনে একটি অটোরিকশা ও একটি প্রাইভেট কারে ডাকাতি করেন। পরে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে তাঁরা ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যান। শ্রীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আমিনুল ইসলাম বলেন, রাত তিনটার দিকে মুষলধারে বৃষ্টি হচ্ছিল। এ সুযোগে ডাকাত দল অটোরিকশা, প্রাইভেট কারসহ বিভিন্ন গাড়িতে ডাকাতি করছিল। কিছুক্ষণের মধ্যে পুলিশের নিয়মিত টহল দল সেখানে যায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাত দলটি পালানোর চেষ্টা করে। এ সময় মহাসড়কের বিভাজকে ডাকাত দলের একজনকে পড়ে থাকতে দেখা যায়। পরে পুলিশ তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনাস্থল থেকে একটি চাপাতি উদ্ধার করা হয়েছে।

শ্রীনগর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মারুফা ইসলাম বলেন, ‘ভোর সাড়ে চারটার দিকে তিনজনকে আমাদের হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। শুনেছি, এর মধ্যে দুই তরুণ ডাকাতের ছুরিকাঘাতে আহত হয়েছেন। তাঁদের শরীরে সামান্য কাটাছেঁড়া ছিল। তাঁদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তবে আরেক ব্যক্তিকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছিল। ওই ব্যক্তির শরীরে আঘাতের কোনো চিহ্ন ছিল না। সম্ভবত স্ট্রোকের কারণে তাঁর মৃত্যু হতে পারে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ বলা যাবে। ওসি আমিনুল ইসলাম বলেন, নিহত ওই ব্যক্তির লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মুন্সিগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হচ্ছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীদের পক্ষ থেকে মামলা প্রক্রিয়াধীন।

 

স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, প্রতিদিন রাতে ঢাকা ও এর আশপাশের এলাকা থেকে অসংখ্য মানুষ মাওয়া ঘাটে বেড়াতে আসেন। এ সুযোগে গভীর রাতে সক্রিয় ডাকাত দল বেড়াতে আসা মানুষের কাছ থেকে মূল্যবান সম্পদ ছিনিয়ে নেয়। এর আগেও ওই মহাসড়কে একাধিক ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। এ ছাড়া পুলিশের নজরদারির অভাবে মহাসড়কে যত্রতত্র যানবাহন থেকে যাত্রী ওঠানামার কারণেও এমন ঘটনা ঘটছে বলে স্থানীয় ব্যক্তিরা অভিযোগ করেন।

 

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ :