আজ ৯ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ :

১৫ টি বেদে পরিবার পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর উপহার ঘর ও জমি

 

সালাহউদ্দিন সালমান।
যুগের পর যুগ ধরে মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে রয়েছে বেদে সম্প্রদায়ের বসবাস।এই বেদে সম্প্রদায়র মাঝে আবার অনেকে বিভিন্ন ইউনিয়নের ভোটারও হয়েছেন ইদানীংকালে।এক সময় গ্রামে গ্রামে ঘুরে চুড়ি-ফিতা ফেরি করে বিক্রি আর নদীতে মাছ ধরে কোনো রকমে চলত অনেক বেদেদের জীবন।মূলত স্থায়ী আবাসনের অভাবে এখানকার বেদেদের সন্তানদের পড়ালেখার তেমন কোনো সুযোগ ছিলোনা।উপজেলায় এখন বেদে পল্লীর বেদেদের অনেকের আছে ভোটাধিকার, জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপজেলা পরিষদ নির্বাচন ও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোট প্রদান করে আসছেন তারা।তবে তাদের ভোটাধিকার দেয়া হলেও বরাবরই নাগরিক সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত ছিলো তারা। নাগরিক হয়েও নাগরিক সুবিধা থেকে বঞ্চিত এই বেদেদের একটাই দাবী ছিলো সেটা হলো স্থায়ী ঠিকানা। তাদের সেই দাবীকে আমলে নিয়ে ভূমিহীন ও গৃহহীন ভাসমান বেদে পরিবারের তালিকা তৈরী করে অবশেষে প্রশাসন ব্যবস্থা করেছে ১৫টি বেদে পরিবারের জন্য প্রধানমন্ত্রীর উপহার ঘর ও জমি।

এ বিষয়ে সিরাজদিখান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শরীফুল আলম তানভীর জানান , উপজেলার শেখর নগর ইউনিয়নের শেখর নগর বাজার সংলগ্ন ইছামতী শাখা নদীর তীর ঘেঁষা আশ্রায়ন প্রকল্পটি বেদেদের জন্য নির্ধারণ করা হয়ছে। ওই সময়ে বেদেদের যে তালিকা করা হয়েছিল সেই তালিকা থেকে যাচাই-বাছাই করে ১৫টি বেদে পরিবারকে শেখরনগর আশ্রায়ন প্রকল্পে পুর্নবাসনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। বর্তমানে আশ্রয়ণ প্রকল্পে বেদেদের জন্যে ঘর নির্মাণধীন আছে । যত দ্রুত সম্ভব ঘর নির্মাণ কাজ শেষ করে ভূমিহীন ও গৃহহীন ১৫ বেদে পরিবারকে তাদের স্থায়ী ঠিকানা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দেয়া মুজিব বর্ষের উপহার জমি সহ ঘর তাদের মাঝে হস্তান্তর করা হবে।

উপজেলা উপঃ প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার আইমিন সুলতানা জানান, চলতি বছরের শুরুতে শেখর নগর আশ্রায়ন প্রকল্পে ১৫টি ঘর নির্মান কাজ শুরু হয়ে বর্তমানে ঘর নির্মান কাজ শেষ পর্যায়ে প্রতিটি ঘর নির্মাণে ব্যায় ধরা হয়েছে ১ লাখ ৯০ হাজার টাকা ।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নের মধ্যে প্রায় ৮টি ইউনিয়নেই রয়েছে বেদেদের বসবাস।উপজেলার মালখানগর ইউনিয়নের তালতলা বাজারের দক্ষিণ পাশে সরকারি ডাক বাংলোর সংলগ্ন ইছামতি নদীর তীর ঘেষে বেদে পল্লী বা বাইদ্যা পট্টি অবস্থিত। প্রায় ৪০/৫০ টি পরিবার নিয়ে গড়ে উঠা এই পল্লীতে বসবাস করে চার শতাধিক বেদে পরিবার। জানা যায় তারা এই এলাকায় প্রায় শত বছরের বেশি সময় ধরে বসবাস করে আসছে।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ :